হযরত আদম (আ) থেকে মুহাম্মদ (সা.) পর্যন্ত পুরো বংশ পরম্পরা… আগে দেখেছেন কি?

Adam to Muhammad pbuh family tree

পৃথিবীর প্রথম মানব ও মানবী হযরত আদম (আ) ও মা হাওয়া (আ)। এই দুজনের মাধ্যমে পৃথিবীতে শুরু হয় মানুষের বংশবিস্তার। এই বংশবিস্তার কীভাবে ঘটেছে, কার পরে কে এসেছে দুনিয়ায়- আদম আঃ থেকে আমাদের বংশ পরম্পরা জানা কি কখনো সম্ভব ? অর্থাৎ আপনি, আপনার বাবা, আপনার দাদা, তার বাবা, তার বাবার বাবা এভাবে হযরত আদম আঃ পর্যন্ত বের করা কী সম্ভব?

সীরাত রচয়িতা ও বংশধারা বিশেষজ্ঞগন আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর পুরো বংশধারা বের করার চেষ্টা করেছেন। যা অনেকদূর পর্যন্ত অনেকটাই নির্ভূল বলে সবাই একমত। চলুন তাহলে আজ দেখে নেই হযরত আদম (আ) থেকে মুহাম্মদ (সাঃ) পর্যন্ত পুরো বংশ পরম্পরাটি কিভাবে এসেছে।

নবী (সাঃ) এর বংশধারাকে তিন ভাগে ভাগ করেছেন সীরাত রচয়িতাগন, যার মধ্যে ৩য় অংশে রয়েছেন হযরত আদম (আ) থেকে হযরত ইবরাহীম (আ), ২য় অংশে হযরত ইবরাহীম (আঃ) থেকে আদনান পর্যন্ত এবং ১ম অংশে আদনান হতে হযরত মুহাম্মদ (সা) পর্যন্ত। নিচে প্রত্যেকটা অংশ বংশক্রম অনুযায়ী দেয়া হল।

তৃতীয় অংশ

তৃতীয় অংশে নিশ্চিতভাবে কিছু ভুল রয়েছে বলেই মনে করেন ইতিহাসবিদ ও সীরাত রচয়িতাগন। তার মধ্যেও যেই পরম্পরা টুকু জানা যায় তা নিম্মরুম।

হযরত আদম (আ)-

তাঁর পুত্র শীশ (আ)

তার পুত্র আনুশা-

তার পুত্র কায়নান-

তার পুত্র মাহলায়েল-

তার পুত্র ইয়াদ-

তার পুত্র আখনুখ/ইদরিস (আঃ)-

তাঁর পুত্র মাতুশালাখ-

তার পুত্র লামেক-

তার পুত্র নূহ (আঃ)-

তাঁর পুত্র সাম-

তার পুত্র আরফাখশাদ-

তার পুত্র শালেখ-

তার পুত্র আবের-

তার পুত্র ফালেজ-

তার পুত্র রাউ-

তার পুত্র ছারুদা (সারুগ)-

তার পুত্র নাহুব-

তার পুত্র তারাহ (আযর)-

তার পুত্র ইবরাহীম (আ)

২য় অংশ

২য় অংশের ব্যাপারে সীরাত রচয়িতাগনের মাঝে কিছু মতভেদ রয়েছে। কেউ এটা সমর্থন করেছেন, কেউ ভিন্নমত পোষন করেছেন আবার কেউ কেউ বিরোধিতাও করেছেন। যাই হোক ইতিহাস থেকে যতটুকু পাওয়া যায় তা নিম্মরুপ।

হযরত ইবরাহিম (আঃ)-

তাঁর পুত্র ইসমাঈল-

তাঁর পুত্র কায়দার-

তার পুত্র আরাম-

তার পুত্র আওযা-

তার পুত্র মাযি-

তার পুত্র সুমাই-

তার পুত্র জারাহ-

তার পুত্র নাহেছ-

তার পুত্র মাকছার-

তার পুত্র আইহাম-

তার পুত্র আফনাদ-

তার পুত্র আইশার-

তার পুত্র যায়শান-

তার পুত্র আই-

তার পুত্র আরউই-

তার পুত্র ইয়ালহান-

তার পুত্র ইয়াহাজান-

তার পুত্র ইয়াসরেবী-

তার পুত্র সুনবর-

তার পুত্র হামদান-

তার পুত্র আদদায়া-

তার পুত্র ওবায়েদ-

তার পুত্র আবকার-

তার পুত্র আয়েয-

তার পুত্র মাখি-

তার পুত্র নাহেশ-

তার পুত্র জাহেম-

তার পুত্র তারেখ-

তার পুত্র ইয়াদলাফ-

তার পুত্র বালদাস-

তার পুত্র হাজা-

তার পুত্র নাশেদ-

তার পুত্র আওয়াম-

তার পুত্র উবাই-

তার পুত্র কামোয়াল-

তার পুত্র পোজ-

তার পুত্র আওছ-

তার পুত্র ছালামান-

তার পুত্র হামিছা-

তার পুত্র আওফ-

তার পুত্র আদনান

১ম অংশ

১ম অংশের ব্যাপারে সকল সীরাত রচয়িতা ও বিশেষজ্ঞগন একমত যে এই অংশে কোন ভুল নেই। এটা আদনান থেকে হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) পর্যন্ত।

আদনান-

তার পুত্র মায়া’দ-

তার পুত্র নাযার-

তার পুত্র মোদার-

তার পুত্র ইলিয়াস-

তার পুত্র মাদরেকা (আমের)-

তার পুত্র খোযায়মা-

তার পুত্র কেনানা-

তার পুত্র নযর কায়েস-

তার পুত্র মালেক-

তার পুত্র ফাহার (কোরায়েশ উপাধি এবং তাঁর নামে কোরায়েশ গোত্র) –

তার পুত্র গালেব-

তার পুত্র লোয়াই-

তার পুত্র কা’ব-

তার পুত্র মাররা-

তার পুত্র কেলাব-

তার পুত্র কুসাই (যায়েদ)-

তার পুত্র আবদ মাননাফ (মুগীরা)-

তার পুত্র হাশেম (আমর)-

তার পুত্র আবদুল মোত্তালেব (শায়বা)-

তার পুত্র আবদুল্লাহ-

তার পুত্র মোহাম্মদ (সাঃ)

তথ্যগুলা আশ্চর্যজনক নয় কি?

এমন আরও অনেক নতুন ও আশ্চর্যজনক তথ্য ও ইসলামী গল্প জানুন এবং যদি নতুন জেনে থাকেন তাহলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।

Share this post on..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *